কৃষ্ণ কেশব- Bangla Kirtan on Krishna Bhakti

By Shankhachur

কৃষ্ণ কেশব

krishna-bhakti-kobita-kirtan
১.আর তো বাজেনা বাঁশি- মথুরার মাঠে 

  দ্বারকা যে চলে গেছে- সাগরের পেটে 
  বৃন্দাবন আছে বটে- গোপীরা যে নাই 
  এখন বোলো তো কৃষ্ণ- তোমে কথা পাই। 

২.মনেতে রচনা করি- বৃন্দাবন ধাম 
   তোমারেই খুঁজে মরি- ওগো ঘনশ্যাম 
   পুরীর রথের মাঝে- তুমি দাও উঁকি 
   মনের গভীর তৃষ্ণা- তোমাকেই দেখি। 

৩.তুমি আছো ইস্কনেতে- যুগলের রূপে 
    আমার অবুঝ মন- গিয়ে খালি দেখে  
    মীরার ঘরেতে তুমি- ছিলে গিরিধারী
    তোমার সুন্দর রূপ- নিহারিতে নারী। 

৪.চৈতন্যের লীলাভূমি- নবদ্বীপ ধাম
    শ্রীখোলেতে বেজে যায়- খালি তব নাম 
    কৃষ্ণ কৃষ্ণ নামে মধু- আমি মাতোয়ারা 
    বাঁচিবনা হে কেশব- তোমাকে যে ছাড়া। 

৫.তোমার নামেতে শুধু- চোখে জল ঝরে 
    তুমি এস সখা হয়ে- প্রাণের মাঝারে 
    তুমি আছো সব শ্বাসে- সব কল্পনায় 
    তোমার বিহনে কৃষ্ণ- নিদ্রা নাহি পায়। 

৬.কোরিনাকো আশা আমি- তোমারে দেখার
    রাধারানী হেরে গেছে- আমি কোন ছার 
    সামান্য মানুষ আমি- অজ্ঞানেতে ভরা 
    উদ্ধার যে পাবোনাকো- তব কৃপা ছারা। 

৭.শক্তি দাও হে প্রভু- তোমারই চিন্তনে 
   তোমার মুরত যেন- থাকে এই মনে 
   তুমিতো গো পঞ্চভূত- সবের কিনারা 
   তোমার বৃহনে প্রভু- মোরে যাবে সারা। 

৮.যারা সব বেঁধে আছে- সংসারের মোহে
    নিরলস চেষ্টা করি- শুধু কাছে গিয়ে 
    মূর্খরা ভাবেনা যারা- খালি অর্থ গোনে 
    তোমার এই  মধুনাম- ভোরে দিই কানে। 

৯.তাইবলি হে কৃষ্ণ- প্রাণ প্রিয় সখা 
    অজ্ঞানীরা ডাকে যারা- দিয়ো তারে দেখা 
    তোমার করুনা রসে- ভোরে দাও সবে 
    মৃত্যর যন্ত্রণা শেষে- তোমারেই পাবে। 

১০.আমার অন্তিম ইচ্ছা- শোনো বংশীধারী 
     তোমার চরণে যেন- যেতে ওগো পারি 
     এই শুধু আশীর্বাদ- দিয়ে যায় মোরে 
     অকারণে কোনো ব্যাথা- দিই নাকো কারে। 

১১.জীবনে চলার শেষে- শোনো প্রাণ সখা 
     তোমারে যে ঘনশ্যাম- পেতে চাই একা 
     প্রণাম তোমাকে ওগো -হে মধুসূদন 
     থাকে যেন সব কাজে -তোমাতেই মন। 

 
                                                             —শঙ্খচূড় 
                                                             ২৪এ  বৈশাখ ১৪২৭

Shankhachur

আমি Shankhachur, Bangla Kobita Blog এর ফাউন্ডার। এইখানে আপনি বাংলা কবিতা, বাংলা উক্তি, এবং আরও অনেক পোস্ট পড়তে পারবেন। ধন্যবাদ!